Home / Fun and Cultures / Movies and TV shows / দেবী ফিল্ম: রানুর রহস্য (পর্ব-২) এবং মিসির আলি যেভাবে সমাধান শুরু করেন – Debi Movie: Mystery of Ranu (Ep-2) & How Misir Ali Started To Solve That

দেবী ফিল্ম: রানুর রহস্য (পর্ব-২) এবং মিসির আলি যেভাবে সমাধান শুরু করেন – Debi Movie: Mystery of Ranu (Ep-2) & How Misir Ali Started To Solve That

সিগারেট জ্বালিয়ে মিসির সাহেব হালকা স্বরে বললেন- ‘কি কারনে যেন মনে হচ্ছে কিছু কথা আমার কাছে বলোনি তুমি। কোন কথা লুকিয়ে গিয়েছো।’ রানু কথা বললো না। মিসির সাহেব বললেন ‘যে অংশটুকু বলোনি সেটা তার জানা প্রয়োজন, কী কাহিনী সেটি, বলা যাবে?’ রানু জবাব দিলো- ‘অন্য একসময় বলবো।’ তবে চলে যাবার আগে রানু জানায় যে লোকটি তার পা জড়িয়ে ধরেছিল তার নাম জালাল উদ্দিন।

পূর্ব অংশঃ www.revcontents.com/debi-movie-mystery-of-ranu-ep-1-and-how-misir-ali-started-to-solve-that

যেভাবে রহস্য উদঘাটন শুরু হয়ঃ এরপর মিসির আলি রানুর সহস্য সমাধানের কাজ শুরু করেন। সবকিছু লিখতে শুরু করেন, ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বিষয় গুলোও বাদ দেন না। রানুর ‘অডিটরি হ্যালুসিনেশন’ হয়, সে একাকী থাকলে কারও ডাক শুনতে পায়, কেউ একজন ওর সাথে কথা বলে। রানুর গল্প থেকে তার মনে কিছু প্রশ্ন জাগে। যেমন – ডেড বডি/মৃত লোক ভাসতে থাকে পানিতে, ডুবে থাকার কথা না; মৃত মানুষটির নাম জালাল উদ্দিন সেটা রানু জানলো কিভাবে! ঐ নামের কাউকে কি রানুর আগে থেকে চিনতো? তবে মেয়েটির মধ্যে কিছু ESP (এক্সট্রা সেন্সরি পারসেপশন) আছে। মানসিক রোগীদের এই দিকটি উন্নত থাকে। এটা নিয়ে প্যারা-সাইকোলজি জার্নালের ৩য় ভল্যুমে (১৯৭৩) একটি রিভিউ পেপার আছে।

তারপর মিসির আলি এমনকি রানুর গ্রামের বাড়ীতেও চলে যান এবং সেখানে অনেকের সাথে কথা বলেন। এভাবে আস্তে আস্তে মিসির আলি রানুর সমস্যা উদ্ঘাটনের দিকে আগাতে থাকেন। ওদিকে রানুর প্রতিবেশি নিলুর সাথেও অন্যরকম ঘটনা ঘটতে শুরু করে। রানু অসুস্থ হয়েও সেটা নিয়ে উদগ্রীব হয়ে ওঠে কিন্তু মিসির আলি সেটা নিয়ে লজিক দেন। এভাবে বিভিন্ন রহস্য বাড়তে থাকে, লজিক এন্টি লজিকের বিশ্লেষণ শুরু হয়, আগাতে থাকে কাহিনী।

সিনেমাটির আল্টিমেট সফলতা এবং মানুষের প্রতিক্রিয়ার কথা আরেকদিন লিখবো। বেশি কিছু বললে স্পইলার হয়ে যাবে। বাকি অংশ পুরো সিনেমা দেখেই উপভোগ করাই উত্তম হবে।

———————————————-

Misir saheb started smoking & said in a low voice, ‘Somehow it seems to me, there is something you did not tell me, you may have hided one thing’. Ranu did not answer. He added, ‘I need to hear the thing that you have excluded. What is that! Can you say?’. Ranu replied she will say that some other day. But before leaving, she said that the person who touched her legs, his name was Jalal Uddin.

Previous Part-1: www.revcontents.com/debi-movie-mystery-of-ranu-ep-1-and-how-misir-ali-started-to-solve-that

Misir Ali’s Works Of Solving: After that, Misir Ali started working on the issue of Ranu’s mystery. He started to write everything, not even small things left. Ranu faces Auditory hallucinations, she hears someone’s voice when she is alone, somebody speaks with her. From the story of Ranu, some questions raised in Misir Ali’s mind. For example, a dead body will remain floating on the water and it will not be drowned; The name of the dead man was Jalal Uddin, how did Ranu know that! Was she known by anyone of that name? However, she has good ESP (Extra Sensory Perception). This aspect of psychological patients is improved. For this issue there is a review paper in the Journal of Parapsychology Volume-III (1973).

Then Misir Ali even went to Ranu’s village and talked to many people there. In this way, slowly slowly Misir Ali approaches forward to solve Ranu’s mystical problems. On the other side, Nilu, the neighbor of Ranu, started to face some different incidents. Despite of being ill, Ranu get anxious of Nilu but Misir Ali showed logic on that issue. In these ways the mysteries expand, the analysis of the logic & anti-logic begins and story continues…

The ultimate success of the film and the response reactions will be written in some other day. If we say anything more that’ll be spoiler. It will be better if the rest of the part is enjoyed by watching the whole movie.

About Techi Geek

1
Leave a Reply

avatar
400
0 Comment authors
Recent comment authors
  Subscribe  
newest oldest most voted
Notify of
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com